Ajker Kashiani
অন্যান্য

আ.লীগ নেতার নামে মামলা; ফুঁসে উঠেছে সর্বস্তরের জনগণ

আজকের কাশিয়ানী ডেস্ক:- কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোক্তার হোসেনের নামে সংবাদ প্রকাশ এবং মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচী ও সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (৫ জুন) বেলা ১১ টায় উপজেলার রামদিয়া-ঘৃতকান্দি সড়কে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

এতে ব্যানার-ফেস্টুন ও প্লেকার্ড নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী, মুক্তিযোদ্ধাসহ শত-শত নারী-পুরুষ অংশ নেন।

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরাফত হোসেন লাবলু, যুবলীগ নেতা আমিরুজ্জামান মিয়া, ছাত্রলীগের সভাপতি আজাদ হোসেন মৃধা, আনোয়ার হোসেন আনু, ইউপি চেয়ারম্যান দেবদুলাল বিশ্বাস, ইমরুল হাসান মিয়া, মাসুদ রানা, জাহিদুল মিয়া, রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস প্রমুখ।

পরে একই স্থানে সংবাদ সম্মেলন করেন আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোক্তার হোসেন।

এ সময় তিনি বলেন, ‘একটি কুচক্রী মহল আমার রাজনৈতিক সুনাম ক্ষুন্ন করতে আমার বিরুদ্ধে নানা ধরণের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয় করার হীন উদ্দেশ্যে আমাকে জড়িয়ে ও আমার ছবি ব্যবহার করে কতিপয় সাংবাদিকদের কাছে ভিত্তিহীন তথ্য পরিবেশন করে সংবাদ প্রকাশ করেছেন। কানন বালা গাইন নামে এক হিন্দু নারীকে প্রভাবিত করে আমার নামে মিথ্যা মামলা করিয়েছেন। কিন্তু আদৌও ওই নারীর সাথে আমার কোন বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব বা বিরোধ নেই। সরকারি কলেজের জমি নিয়ে কলেজের সাথে তার বিরোধ। সেখানে আমাকে অহেতুক মামলায় জড়িয়ে মানহানি ও হয়রানি করার চেষ্টা করছেন ওই নারী। আমি ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

তিনি আরো বলেন, আমি ছাত্র জীবনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলাম। তারপর কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে সভাপতি এবং জেলা আওয়ামী লীগের একজন সদস্য হিসেবে নিষ্ঠা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি। আপনারা আরও জানেন যে, দলের দুর্দিনে দলের পাশে থেকে সংকট মোকাবেলা ও নানা প্রতিকূলতার মাঝে সংগ্রাম করেছি। আমার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক জীবনে কোন ধরণের বদনাম নেই। আমার কোন লাঠিয়াল বাহিনী নেই।’

আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোক্তার হোসেনের নামে করা মামলা দ্রুত প্রত্যাহার করতে হবে। ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচীর হুঁশিয়ারি দেন আ.লীগের নেতাকর্মীরা।